মিডিয়া ছাড়ার পেছনে বাজে অভিজ্ঞতা নেই : হাসিন রওশন

Hasin3

২০১১ সালের চ্যানেল আই টপ মডেল প্রতিযোগিতার খেতাব জয়ী মডেল হাসিন রওশন। এরপরের পাঁচ বছর দাপিয়ে বেড়িয়েছেন মিডিয়ার সর্বত্র। তারপরেই ছন্দপতন। মডেল-অভিনেত্রী হিসেবে যথেষ্ট চাহিদা থাকা সত্ত্বেও তিনি মিডিয়া লাইফকে বিদায় জানান। কেন বিদায় জানিয়েছিলেন? এখন কি করছেন তিনি? এসব প্রশ্নে উত্তর খুঁজতেই বার্তাসংস্থা পিবিএ-এর পক্ষ থেকে তার সঙ্গে কথা বলেছেন জিয়াউল জিয়া

প্রশ্ন : মিডিয়া থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন কেন?

হাসিন রওশন :আমার বাবা-মা খুবই ধার্মিক এবং রক্ষণশীল। তারা কখনোই আমার মিডিয়ায় কাজ করাটা সমর্থন করেননি। প্রথম থেকেই আমাকে তাদের সঙ্গে যুদ্ধ করেই এগোতে হয়েছে। এক সময় খুব ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিলাম। অঅপনার যেকোন কাজের প্রথম রেসপন্স পাওয়ার স্থানটা অবশ্যই তার বাসা। সেখান থেকেই যদি নিরুৎসাহিত হন তবে আপনার মন খারাপ হবেই। তারপর বেবি নেওয়ার চিন্তাও করলাম। তো ভাবলাম ছেড়েই দেই। তাহলে পারসোনাল লাইফেও টাইম দিতে পারবো আর বাবা-মা’ও খুশি থাকলেন।

 প্রশ্ন : কাজের ক্ষেত্রে নতুনদের নাকি নাকি নানা শর্তের ভেতর দিয়ে যেতে হয়?

হাসিন রওশন : দেখুন, আমি অন্তত এসব শর্তের মধ্য দিয়ে কোন কাজ করিনি। এসব ফেসও করতে হয়নি। আসল কথা আমাদের বুঝতে হবে যে, সবার জন্য মিডিয়া না। আমি যে কাজের যোগ্য না সে কাজ যখন আমি করতে চাইবো তখন সেটা দেওয়ার বদলে মানুষ তো নানা আবদার করবেই। কারণ, সে তোমাকে যে সুযোগ দিচ্ছে সেটা তো তোমার প্রাপ্য না। তাই, সবার উচিত নিজেকে তৈরী করে আসা। যখন আপনি একজন দক্ষ অভিনেতা বা মডেল হবেন, সব জানবেন-পারবেন তখন মানুষ তার নিজের কাজের জন্যই আপনাকে খুঁজবে। আপনার তাদের পেছনে ঘুরতে হবে না। যেকারনে শুধুমাত্র স্বপ্ন না দেখে, ডিরেক্টরদের পেছনে না ঘুরে নতুনদের উচিত হবে নিজেদের তৈরী করা।

Hasin

প্রশ্ন : আপনি তো রিয়েলিটি শো’র মাধ্যমে এসেছিলেন। যে কারণে ভাল মানের গ্রুমিং পেয়েছেন। নতুনরা শিখবে কোথায়?

হাসিন রওশন : এখন তো এরকম অনেক প্রতিষ্ঠান হয়েছে যারা এ বিষয়ে কর্মশালা করায়। সেখান থেকে শিখতে পারে। এছাড়াও অভিনয় শেখার জন্য থিয়েটারে যোগ দিতে পারেন। অনেক সময় টেলিভিশনে অন্যের অভিনয় দেখেও অনেক কিছু শেখা যায়। সব মিলিয়ে, কেউ যদি শিখতে চায় তবে এখন অনেক উপায় আছে।

প্রশ্ন : অভিনয় বা মডেলিং পেশা হিসেবে নেওয়া সম্ভব?

হাসিন রওশন : এখন সম্ভব। এখন তো অনেক চ্যালেন। অনেক কাজ হচ্ছে। যেকারণে আগের সেই শিল্পী সংকট এখন আরও প্রবল হয়েছে। এখন কেউ যদি একটা কাজের মাধ্যমে নিজেকে প্রমাণ করতে পারেন তবে তার আর পেছন ফিরে তাকাতে হবে না। আর এখন তো নতুনদের মিছিল চলছে। এটা অবশ্যই একটা ইতিবাচক দিক।

প্রশ্ন : নতুনদের উদ্দেশ্যে কি বলবেন ?

হাসিন রওশন : শুধু বলবো কখনো কোন পরিস্থিতিতেই থেমে যেয়ো না। নিজের মেধাকে শানিত করে এগিয়ে যাও। সাফল্য ধরা দেবেই। আর নিজেকে প্রতিনিয়ত আপডেট করো। কারন, অভিনয় হলো লার্নিং প্রফেশন। সারাজীবন এখানে শেখার সুযোগ আছে।

Hasin2

প্রশ্ন : কখনো পরিচালননায় আসার ইচ্ছে আছে কি?

হাসিন রওশন : আমি মিডিয়া ছেড়েছি মানে চিরদিনের জন্যেই ছেড়েছি। আর কখনো কোন প্লাটফর্মেই ফেরার ইচ্ছে নেই। এক্ষেত্রে অবশ্যই বলতে চাই যে, মিডিয়া ছাড়ার ক্ষেত্রে আমার কোন বাজে অভিজ্ঞতা নেই।

প্রশ্ন : এখন দিন কাটছে কি নিয়ে?

হাসিন রওশন : আমি ইন্টেরিয়র ডিজাইনের কাজ করছি। এ নিয়ে খুবই ব্যস্ত আমি। একটার পর একটা কাজ করেই যাচ্ছি। এখনো পারসোনালি করছি। খুব শিগগিরই প্রাতিষ্ঠানিক আঙ্গিকে শুরু করবো।

আরও পড়ুন...